ছায়া-শ্বাপদ

নতুন একটি স্বপ্ন দেখছি-
কিন্তু একটা তেলাপোকা
বিদঘুটে, ছয় পেয়ে-
মাথার মধ্যে কিলবিল করছে।
মাঝরাতে হঠাৎ ঘুম থেকে
উঠে দেখি-
অশুভ প্রেতাত্মারা কালো থাবা
বাড়িয়ে বসে আছে।
আকাশের দিকে তাকাই-
সেখানে মাথার উপর গাংচিলেরা
উড়ে বেড়াচ্ছে।

চোখ বন্ধ করি-
মনে প্রানে চাই তোমাকে দেখতে।
তুমি লাল শাড়ী পরে একটার পর
একটা-এভাবে চারটা
দরোজা খুলে আমার দিকে এগিয়ে আসছো।

কিন্তু এ কি! তোমার চোখ বিষন্ন কেন?
চারটা দরোজাই হঠাৎ বন্ধ হয়ে যাচ্ছে কেন?

আমি চিৎকার করে ডাকি তোমাকে-
মরা কান্না ভেসে আসে দূর থেকে।
আকাশের দিকে তাকাই-
গাংচিলেরা দ্রুত নিচে নেমে আসছে।
মাঝরাতে হঠাৎ ঘুম থেকে
উঠে দেখি-
অশুভ প্রেতাত্মারা কালো থাবা
দিয়ে আমাকে ছুঁয়ে ফেলছে।
মাথার মধ্যে বিদঘুটে, ছয় পেয়ে
একটা তেলাপোকা ক্রমশঃ বড় হচ্ছে,
এখন আর তা কিলবিল করছে না-
মনে হচ্ছে যেন মগজ খাচ্ছে।

আমি বড্ড ভয় পাচ্ছি, বড্ড ভয়-
পাছে নতুন স্বপ্নটা ভেঙ্গে যায়।

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s